বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ০৫:২০ অপরাহ্ন

নোটিশঃ
সারাদেশে ব্যাপী প্রতিনিধি/সংবাদদাতা নিয়োগ চলছে আগ্রহীরা ইমেইলে সিভি পাঠান- ‍admin@dailybdnews360.com  । আমাদের সাথেই থাকুন, ধন্যবাদ সবাইকে।

সাভারে খলনায়কের পশু-পাখির খামার

শিশির আহমেদ( টুটুল)বিশেষ প্রতিনিধি: মহাসড়ক ছেড়ে শাখা সড়ক ধরে কিছুদুর গেলেই চোখে পড়বে রাজকীয় ফটক। না ভিতরে কোন সাড়া শব্দ শোনা যায় না। কড়া নড়লে ভিতর থেকে কেউ একজন ফটকের ছোট ছিদ্র দিয়ে প্রশ্ন করে। কে? কার কাছে যাবেন? তারপর, ঢুকে একটু সামনে যেতেই পিচঢালা বাড়ির আঙ্গিনায় গরুর খামার। পাশে সাজিয়ে রাখা নানা প্রজাতির দেশি-বিদেশী পাখি। আর উপরে কবুতরের বাসা। এমন পরিবেশ ঘিরে পাহাদারের মতো দাড়িয়ে আছে সবুজ গাছ আর বড় বড় রাজকীয় অট্টলিকা। তার মাঝ খানে এমন পশু-পাখির সাজানো গোছানো খামার এক নজরেই দৃষ্টি কাড়বে।

ছবি: নিজের খামারে ডিপজল।

সাভারের রাজফুলবাড়িয়ার বাসস্ট্যান্ড ছেড়ে একটু সামনে গেলেই কারুকার্যে পূর্ণ বাড়ি দেখলে মনে হয় কোন রিসোর্ট। আবার খামার দেখলে মনে হয় কোন পেশাদার পশু খামারীর বাড়ি। এ কেমন বাড়ি? প্রশ্ন ঘুরছে মাথায়। এমন বাড়ির মালিক বাংলা চলচ্চিত্রের সেরা খলনায়ক ডিপজলের পরিবার। পরিবার সমেত এ বাড়িতেই বাস করেন ডিপজল।

পর্দার ভয়ঙ্কর ডিপজলের মনে পশুপাখির জন্য এত দরদ! কারণ এত বড় খামার শুধু বাড়িতেই নয়। আরো কয়েকটি খামার আছে সাভারের কয়েকটি স্থানে। এ খামারগুলো ব্যবসায়িক উদ্দেশ্যে নয়, একেবারে শখের বশেই গড়ে তুলেছেন ডিপজল।

ঘুরে দেখা মেলে, বিভিন্ন দেশের ও জাতের প্রায় ৭-৮ হাজার কবুতর। বিভিন্ন দেশের কবুতর যেমন পাংখি, আর্মি, রাণী, ময়না, জুটপরী, ন্যাপটা, সাফটিলা, চিলা, খাকী, গররাসহ অন্যান্য জাতের কবুতর। কবুতরগুলো যখন দলবেঁধে পাখামেলে তাদের উপস্থিতি জানান দেয়, তখন দেখতে সত্যিই চমৎকার লাগে। কবুতর খামার দেখার জন্য রয়েছে কর্মকর্তা ও কর্মচারী।

বাড়ীর আঙ্গিনায় রয়েছে একটি বড় গরুর খামারও। সেখানে বিভিন্ন জাতের গরু যেমন জার্সি, রানী, ফ্রিজিয়াম, ব্রাহামা, সিন্ধী, ভুট্টি সহ নানা জাতের গরু রয়েছে। গরু হতে প্রতিদিন প্রায় ৩০০ লিটার দূধ পাওয়া যায়। যার এক লিটার দুধও বাইরে বিক্রি করা হয়না, দুধ কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং ডিপজল নিজেই খান। উল্লেখ্য, এই গরুর খামার ছাড়াও ডিপজলের একাধিক গরুর খামার রয়েছে বিভিন্ন স্থানে।

কবুতর ও গরু পালনের পাশাপাশি তিনি একজন খাঁটি প্রকৃতি প্রেমিকও বটে। যার প্রমাণ পাওয়া যায় বিভিন্ন দেশের ও নানা জাতের পাখির কিচিরমিচিরে পরিপূর্ণ বাগান দেখে।

বিভিন্ন প্রকারের পাখির মধ্যে আছে কাইশাপাখি, লরী, কাকাতোয়া, গ্রে-প্যারট, টিয়া, সেনেগাল, বাজীগরসহ নানাজাতের পাখি। কবুতর, গরু, পাখির পাশাপাশি রয়েছে বিভিন্ন জাতের ছাগল দুম্বা ও ভেড়ার খামার।

নিজের খামার নিয়ে ডিপজল বলেন, আমি পাখি, কবুতর, ভেড়া, ছাগল, দুম্বা, গরু পালি শখে। লাভের চিন্তা করতে গেলে পশুপাখি কষ্ট পায়, কারণ তখন তাদের খাবার কম দেয়া হয়। আর মন থেকে পাললে তাদের পেছনে খরচও একটু বেশি হয়, তারা ভালো খাবার পায়।

নতুন খামারীদের উদ্দেশ্যে তিনি আরও বলেন, ভালো ভাবে চর্চা করলে লাভবান হওয়া যায় এই পেশা থেকে। যে কেউ এটাকে পেশা হিসেবে নিতে পারেন।

১৯৫৮ সালের ১৫ জুনে ঢাকার মিরপুরের বাগবাড়িতে জন্ম নেয়া ডিপজলের বাংলা সিনেমায় আগমন হয় পরিচালক মনতাজুর রহমান আকবরের হাত ধরে। তার প্রথম ছবি ‘টাকার পাহাড়’।

কাজী হায়াৎ পরিচালিত ‘তেজী’ ছবিতে তিনি প্রথম ভিলেনের চরিত্রে অভিনয় করেন। ওই ছবি রীতিমতো সাড়া ফেলে দেয়। অবস্থা এমন হয়েছিল যে, ডিপজল মানেই ছবি হিট। টানা কয়েক বছর ভিলেন হিসেবে দাপটের সঙ্গে অভিনয়ের পর বিরতি নেন তিনি।

এসএম

সংবাদটি শেয়ার করুন:

আর্কাইভ

SatSunMonTueWedThuFri
     12
10111213141516
17181920212223
24252627282930
       
  12345
2728     
       
  12345
27282930   
       
28293031   
       
891011121314
29      
       
    123
18192021222324
       
      1
2345678
30      
© All rights reserved © 2019 Dailybdnews360.Com
Design & Developed BY-Dailybdnews360.com
error: কপি করা যাবে না !!